বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:১৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
সাহিত্যে রহিম করিম ওয়ার্ল্ড প্রাইজ পেলেন এস এম শাহনূর পর্যটন পুলিশের মিডিয়া উইংস প্রধান আবদুল হালিমকে কবি সাংবাদিকদের ফুলেল শুভেচ্ছা ভুলে ভরা বাংলাদেশের নদী বিষয়ক গ্রন্থগুলো -হাসনাইন সাজ্জাদী বৃক্ষরোপণ ও সবজি চাষে জোর দিচ্ছে ট্যুরিস্ট পুলিশ নিউইয়র্ক বইমেলায় সাহিত্যমান বিতর্ক এখন বিজ্ঞান কবিতার কাল -হাসনাইন সাজ্জাদী ‘পৃথিবীর পথে-প্রান্তরে’ আমার কয়েকটি কথা -হাসনাইন সাজ্জাদী আনন্দকাব্য না বিজ্ঞানচিন্তা? বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যয়ী হতে নির্দেশ ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপির মিডিয়া শাখায় নতুন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবদুল হালিম। ট্যুরিস্ট পুলিশ সদর দপ্তরে
সানজিন শিরিন । তাঁর কোলে নব জাতক

সানজিন শিরিন । তাঁর কোলে নব জাতক

সানজিন শিরিন

অন্য রকম বাংলাদেশ-
মেয়েটির নাম সানজিন শিরিন । তাঁর কোলে নব জাতক যমজ শিশু। তিনি একজন সিনিয়র নার্স । কাজ করেন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ক্যামেলিয়া ডানকান ফাউন্ডেশন হাসপাতালে । তার জন্ম সিলেটের হবিগঞ্জ জেলায় । বাংলাদেশে তাঁর মত হাজার হাজার নার্স কাজ করেন । মানুষের সেবা করেন । কিন্তু তিনি তাঁদের চেয়ে আলাদা ।

তিনি যে হাসপাতালটিতে কাজ করেন সেখানে ১৭টি চা বাগানের শ্রমিকদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হয় । গরীব শ্রমিকদের অন্য হাসপাতালের ব্যয় বহন করা সম্ভব না । হাসপাতালের উপরের একটি কক্ষে থাকেন শিরিন । এখানেই তার জীবন । গরীব রোগীর খাবার না থাকলে তিনি তার খাবার থেকে তাঁদের খাবারও দেন ।

আমাদের দেশের প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিকে যেখানে এখন প্রায় ৬০% শিশুর জন্ম হয় সিজারিয়ান অপারেশন এর মাধ্যমে সেখানে শিরিন গরীব মায়েদের নরমাল ডেলিভারী করান ১০০% । এবং তা করেন তিনি বিনা টাকায় । এক মায়ের ডেলিভারীর পর তার স্বামী খুশী হয়ে তাকে ২০/- টাকা বকশিস দিতে চেয়ে ছিলেন । শিরিন হেসে তা ফেরত দিয়েছেন । ভোর রাত কিংবা ঝড় বৃষ্টির রাত হোক , শিরিন কখনও ক্লান্ত হন না এ কাজে । তিনি নব জাতকের সাথে সেলফি তোলে তার Facebook wall এ post দিয়ে হাসেন আর মনে মনে বলেন ,” আমি গরীবের ডাক্তার । আমাকে মায়ের পেট কেটে সন্তান ভূমিষ্ট করাতে হয় না । আমি পারি সৃষ্টিকর্তার কৃপায় ।”

আরো পড়ুনঃ শরীরে কি নিয়েছেন। হারাম রক্ত?

এ পর্যন্ত শিরিন ৬১০ টি নরমাল ডেলিভারী নিজে করিয়েছেন । জটিল সমস্যা নিয়ে আসা মায়েদেরও তিনি অসীম সাহসিকতার সাথে নরমাল ডেলিভারী করিয়েছেন । সব মায়েরা সুস্থ আছেন । শিরিন বলেন ,” সিজারিয়ান শিশু ও মায়ের ভবিষ্যতে সমস্যা হয় । কিন্তু নরমাল ডেলিভারী করাতে পারলে ২ ঘন্টার পর মা স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারেন । শিশুর ব্রেইন ভাল হয়। “

সারা দেশের সানজিন শিরিনদের খুঁজে বের করে রাষ্ট্রের উচিত পুরস্কৃত করা যেন আমরা তাঁদের মত হই । টাকা আমাদের মনুষ্যত্বকে কিনে নিয়েছে । শিরিনকে পারেনি । শিরিন অনেক গরীব ঘরে জন্মেছিল কিন্তু তার অন্তর আমার চেয়ে অনেক ধনী ।সে গরীবের ডাক্তার আর বড় লোকের কাছে সাধারন নার্স ।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesbazar_brekingnews1*5k
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD