রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৩৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বিলডাকিনি চলচ্চিত্র নিয়ে নানা অভিযোগ মেঘের

বিলডাকিনি চলচ্চিত্র নিয়ে নানা অভিযোগ মেঘের

তরুণ চলচ্চিত্রকার মনজুরুল ইসলাম মেঘ।বিলডাকিনি অনুদানপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রের তিনি পরিচালক।একই সঙ্গে চিত্রনাট্যকার ও সংলাপ রচয়িতা তিনি।তার কথায়,প্রযোজক নানা অনিয়ম করে তাকে সরিয়ে দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট চলচ্চিত্রের নির্মাণ থেকে।ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি যা লিখেছেন তা পূর্বাপর জনগুরুত্ব বিবেচনায় প্রতিবেদনে তুলে ধরেছে।”আজ জেনিফার অনুদানপ্রাপ্ত সিনেমার বাজেট নিয়ে কথা হচ্ছে, প্রতিবাদ হচ্ছে। জেনিফা ও আমি পাশাপাশি চেয়ারে বসে অনুদানের ইন্টারভিউ দিয়েছিলাম, তার অনুদানের চিত্রনাট্যে ত্রুটি ছিলো, ইন্টারভিউতে উপসচিব সেটি বলেছিলেন, সম্ভবত চিত্রনাট্যকারের নাম নিয়ে কোন সমস্যা ছিলো।

একটি ত্রুটি সম্পূর্ণ পান্ডুলিপি অনুদানের ইন্টারভিউ বোর্ড পর্যন্ত কি ভাবে এসেছিলো জানিনা, যখন অনুদানের গেজেট বের হলো, সেও অনুদান পেলো, আমিও পেলাম।

জেনিফা কয় টাকায় সিনেমা বানিয়েছে জানিনা।

তবে আমি যে সিনেমার অনুদান পেয়েছিলাম সেই সিনেমায় সরকারী টাকার সঠিক ব্যবহার করে একটি ভালো সিনেমা বানাত চেয়েছিলাম, প্রযোজক আমাকে বাধ্য করেছিলেন ৩০ লাখ টাকার মধ্যে সিনেমা শেষ করতে, তথ্য প্রমানসহ সেই বিষয় মন্ত্রনালয়কে জানিয়েছিলাম, তার পরে দেখলাম, আমি সিনেমা থেকে বাদ, অন্য পরিচালক সেই সিনেমা নির্মান করতেছেন। তাও আবার সেই পরিচালক একই গেজেটের অন্য আর একটি সিনেমার প্রযোজক ও পরিচালক। (গেজেটের ৩ নং সিরিয়ালের পরিচালক)। একই পরিচালক একই বছরে অনুদানপ্রাপ্ত ২ টি সিনেমা আইনত নির্মান করতে পারেনা। চলচ্চিত্র অনুদান নীতিমালা অনুযায়ী অবৈধ।

সকল চলচ্চিত্র পরিচালকের কাছে আমার প্রশ্ন, আমি হয়তো অযোগ্য আপনাদের দৃষ্টিতে কিন্তু দেশে কি পরিচালকের এতই সংকট হলো যে, একজন ব্যক্তি একই বছর অনুদান প্রাপ্ত ২ টি সিনেমা পরিচালনা করবেন? তাও আবার ইতোপূর্বে তার চলচ্চিত্র পরিচালনার কোন অভিজ্ঞতা নেই। এই অন্যায় আপনারা কি মেনে নিবেন? আজ আমি কাল আপনি টার্গেট, পরশু অন্য কেউ। সকল পরিচালকের প্রতিবাদ করা উচিৎ, এই প্রতিবাদ আমার একার নয়, সবার।

আমার অনুদানপ্রাপ্ত সিনেমার চিত্রনাট্যকার ও সংলাপ রচিয়তা আমি, আমার নামে কপিরাইটও আছে, কিন্তু মন্ত্রনালয় আমলে নিলেন না, প্রযোজকের অবৈধ ক্ষমতার জোরে। জাতির কাছে আমি এই একটি প্রশ্নই করতে চাই প্রযোজকের ক্ষমতার উৎসটা আসলে কি? আপনারা কি এই প্রশ্নটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত পৌছিয়ে দিতে পারেন না?

মন্ত্রনালয় আমাকে জানাবেন বলেছেন, আজো জানাই নি, কেটে গেছে প্রায় দুই বছর। মন্ত্রনালয়. আমাকে আনুষ্ঠানিক ভাবে জানাবেন এই আশা করি।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে আমার সমস্যা নিয়ে একটি মিটিং হয়েছিলো, সমিতি বলেছিলো সমাধানের পথে, আমাকে জানাবে। কেটে গেলো প্রায় ১ বছর। এই হলো আমাদের সমিতির অবস্থা?

আমার অনুদানপ্রাপ্ত বিলডাকিনি সিনেমা নিয়ে যারা নিরব ভূমিকা পালন করতেছেন তারা হয়তো ভাবতেছেন চুপ থাকলে মেঘের ক্ষতি হবে। মেঘ পরিচালক হবেনা। আপনারা চুপ থাকলে দেশের সম্পদের ক্ষতি হবে, জনগনের টাকা লুটপাট হবে। আপনাদের প্রতিবাদ করা উচিৎ।

বাংলাদেশ সরকার অামাকে অনুদান দিয়ে সম্মানিত করেছিলো, কয়েকজন অসৎ কর্মকর্তার যোগসাজসে চলচ্চিত্রের বিপদগামী ব্যক্তিত্বদের সহযোগিতায় এক ভন্ড প্রযোজক ক্ষমতা ব্যবহার করে আইটি ব্যবসায়ী থেকে প্রযোজক বনে দেশের অর্থ আত্নসাৎ করেছে। যার হিষ্ট্রিতে কোন দিন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টতা ছিলোনা, আমার সাথে প্রতারণা করেছে। মন্ত্রনালয়ে জমাকৃত অধিকাংস পেপারস জাল জালিয়াতি করা। তার জাল জালিয়াতির কারনে আমি প্রতারিত হয়েছি।

গেজেটের ৩ নং আর ১৬ নং সিনেমা যখন একই পরিচালক প্যাকেজে নিয়ে নির্মান করেন, তখন বলায় যায়-
“একের ভিতর দুই,
টাকা ভাগাভাগি আমি আর তুই”
(চলচ্চিত্র অনুদান নীতিমাল অনুযায়ী একই ব্যক্তি ২ টি সিনেমা নির্মান করা বৈধ নয়।)

আমি দেশবাসীকে জানাতে চাই, আমাকে যে প্রতারিত করেছে, সে আপনাদের সাথেও প্রতারণা করেছে, কারণ অনুদানের টাকা জনগনের।

আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাই, একটি নিরপেক্ষ কমিশন গঠন করে এসব অনিয়ম, জাল জালিয়াতি, সরকারী অর্থ লুটের নীলনকশাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করার।

এই পোস্ট টা যদি ফারুকী ভাই দিতেন তাহলে পত্রিকার ফাস্ট লিড হতো, আমি দিলাম তাই হয়তো খবরে আসবেনা, কিন্তু ফেসবুকের মাধ্যমে যারাই দেখবেন, তারাই জানবেন অনুদানের টাকা আসলে কি ভাবে লুট হচ্ছে।

আমি বিশ্বাস করি, জনগন পারে সকল অন্যায় প্রতিহত করতে, জনগন পারে ন্যায় প্রতিষ্ঠা করতে, বাংলাদেশের জনগন পারে নাগরিকের অধিকার ফিরে দিতে। আমি সেই সোনালী ভোরের অপেক্ষায়, যে দিন তরুনরা প্রতিভার বিকাশ করবে ন্যায্য অধিকারে, কারু অনুকম্পায় নয়।”

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesbazar_brekingnews1*5k
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD