শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ০৮:৩০ অপরাহ্ন

হাসনাইন সাজ্জাদী’র কবিতা

হাসনাইন সাজ্জাদী’র কবিতা

ফিরে দেখা

ফিরে দেখা আমির মঞ্জিল
হাসনাইন সাজ্জাদী

এক জনে রান্ধে-বাড়ে আরেক জনে খায়
পূর্ব-পুরুষের শ্রমে জমানো সম্পদ উত্তরাধিকারের ভিত্তি
শ্রম দিয়ে যে সম্পদ গড়ে তার ওপর ভিত্তি করেই পথচলা শুরু প্রজন্মের
আমরা সে প্রজন্ম যার ভিত মীর বাড়িতে আমির মঞ্জিল যেখানে দাঁড়িয়েছে।
আছু মির মছু মির কটু মিরের উত্তরাধিকার
মামদ মুছিম ও মামদ হাসিম ছুঁয়ে
হামদু মীর ছমদু মীর আমির সাধু আর
ইদ্রিস মৌলভির জন্মভিটে
শ্রমে ঘামে কেটেছে বেলা আমির সাধুর
বাকিরাও তাকে ছেড়ে দিয়েছে মাঠ
মাঠের পর মাঠ ঘুরে গোবর কুড়িয়েছেন তিনি
যার ফলে প্রবাদ হয়েছে তার নামে-
‘আস্তা বন্দে গুবর তুবাইন আমির সাধু আরা তারা’
ফিরে দেখা আমির মঞ্জিল গড়া তার শ্রমে ঘামে।
হাজী সজ্জাদ আমির সাধুর বড়ো ছেলে সুফি মানুষ
সজ্জাদ আলীর একমাত্র পুত্র সন্তান আমি
জীবন্ত ফানুস আমি
কন্যা সন্তান আরো জনা পাঁচেক
পুত্রের চেয়ে কন্যাদের আগমন ভাল হয়
এ বাড়িতেও তার ব্যতিক্রম নয়
আমার জন্মে বাড়েনি আমির মঞ্জিলের জৌলুস। শৈশবের স্মৃতিতে আমি বালক ছিলাম অবোধ
বড়ো বোনকে পুকুর জলে ঠেলে দিয়ে মরতে বসিয়ে
আবার পাশের ক্ষেত থেকে বাবাকে ডেকে এনেছিলাম
মায়ের নিষেধ ছিল তার মেয়েদের গায়ে হাত না তোলার
যদিও তারা ছিল লক্ষ্মী আর কোনো দিনও
শাসন করতে হয়নি তাদের।
আমি এখন তাদের মমতায় বাস করি
আমির মঞ্জিল এলেই ঠের পাই তাদের অস্তিত্ব।
মা বাবা দাদা দাদি চাচা চাচি ফুফা ফুফুরা সবাই
ছিলেন শৈশব জুড়ে জীবন চলার পথঘিরে
এদের স্মৃতি এখন কতটুকু বিস্মৃত আর এতটুকু নিয়ে
সময়ের ইতিহাস এগিয়ে নিতে না পারলেও ধরে রাখার চেষ্টা
আমির মঞ্জিল ছেড়ে বেরিয়ে পড়া আমি সামনে এগোতে পারিনি খুব একটা
আমার উত্তরাধিকাররা যেনো আরো সামনে এগিয়ে যায়
সে চেষ্টায় আমিও বিশেষভাবে নিবেদিত।
ফিরে ফিরে আসি ফিরে ফিরে দেখি
আমার ঐতিহ্যকাব্য আমির মঞ্জিল
আমি তার কতটুকু দেখতেই পাই যার বিশাল অন্তর
যা কিছু দেখি আর লেখি তার সবই বাহিরের আস্তর।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesbazar_brekingnews1*5k
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD