সোমবার, ১৫ Jul ২০২৪, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন

শরীরে কি নিয়েছেন। হারাম রক্ত?

শরীরে কি নিয়েছেন। হারাম রক্ত?

শরীরে

শরীরে কি নিয়েছেন। হারাম রক্ত?

বোরকা পরিহিত মেয়েটি একটা বাচ্চার ট্রলি নিয়ে এদিকেই আসছে। প্রচন্ড রোদ, তার হাতে পায়ে মোজা এবং চামড়ার সেন্ডেল। পথ দেখার প্রয়োজনে শুধু চোখ দুটো খোলা। ৩৯° তাপমাত্রা, অত্যন্ত ক্লান্ত চলন তার।


রেস্তোরাঁয় রাস্তার পাশের টেবিলে আমরা খাচ্ছিলাম।


আমাদের কাছ এসে দাড়িয়ে আমার বউকে সালাম দিয়ে বলল কেমন আছেন ভাবি? মেয়েটি স্লিম, কথার সুরে অনুমান বয়স তেমন বেশি নয়। বাইশ কিংবা পঁচিশ বছর হবে। বউ সালাম নিয়ে খালি চেয়ার দিখিয়ে বলল বসুন আমি বাচ্চাটাকে একটু কোলে নেবো। বউ বাচ্চাটাকে কোলে নিয়ে বলল কি খাবেন আপনি?


মেয়েটি বলল, আমি রোজা। আর আপনারা যা খাচ্ছেন তা তো হালাল নয়। আমার ছেলে জিজ্ঞেস করলো বাবা হালাল নয় কেন? কারণ এমনিতেই আমার সন্তান কোন প্রকার মাছ মাংস অর্থাৎ প্রাণীর কিছু খেতে চায় না। বুঝিয়ে শুনিয়ে খাওয়াতে হয়।

বউয়ের মুখের দিকে তাকিয়ে বুঝতে বাকি নেই কিছু একটা ঘটতে যাচ্ছে। চল ভেতর থেকে ড্রিংক রিফিল করে আনি বলে সন্তানের হাত ধরে ভেতর চলে গেলাম। বউ মেয়েটিকে বলল আপনাকে ক্লান্ত লাগছে বসুন একটু, কোথায় যাচ্ছেন? আপনার স্বামী কোথায়? তিনি কাজে মেয়েটি বসতে বসতে বলল বাচ্চার টিকা ছিল কিন্তু ক্যান্সেল হয়ে গেছে তাই বাসায় যাচ্ছি।

বউ বলল চার মাস আগেই তো আপনি প্রসব করছিলেন। আপনার প্রশবে জটিলতা ছিল। পেটের ভিতর সন্তান বড় হয়ে গিয়েছিল তাই জরুরি অপারেশন করেছিলন প্রফেসর ডাক্তার মারিও সিলভা?


হ্যাঁ!মেয়েটি বলল।


বউ বলল রক্ত সংগ্রহের জন্য সময় লেগেছিল তিন চার দিন তাই না? আরিয়ানা কস্তা রক্ত ডোনেশন করেছিল আপনি কি জানেন? মেয়েটি বলল, কে রক্ত দিয়েছিল জানিনা তবে রক্তের সংকট হয়েছিল করোনার কারণে তা জানি।

কিন্তু ভাবি আপনি এসব জানলেন কিভাবে? আমি ছেলেকে রিফিল করতে বলে কান পেতে ওদের শুনছিলাম। বউ বলল, ডাক্তার মারিও সিলভা হলো আমার সহকর্মী কার্লা মার্টিনের শিক্ষক।

আরো পড়ুনঃ নক্ষত্রের নিউক্লিয়াস ভেঙ্গে সাদা কফিন-মধ্যাহ্নের কোলাহল

তিনি কার্লাকে বলেছিল বাঙালি এক মেয়ে কম বয়স এবং রুগ্ন পেটে বাচ্চা বড় হয়ে গেছে। তার যোনির নিচের অংশ কেটে নর্মাল প্রসব করানো হয়েছে। অনেক রক্তক্ষরণ হয়েছিল। যোনির নিচে চারটি সেলাই করা হেয়েছে যা পায়ু পথের ক্ষতিও হতে পারতো।

কিন্তু বয়স কম বলে রিকভারি হয়ে গেছে। মেয়েটি বলল সেলাই চারটা করেছে জানি তবে এতো কিছু জানি না।


বউ বলল, আপনাকে বোরকা পরিয়ে অপারেশন রুমে নিয়ে যাওয়া হয় নি। যে ডাক্তার আপনার যোনি সেলাই করেছিল সে একজন ৪৫ বছর বয়সী পুরুষ। ঐখানে একজন নারী এবং আরো একজন পুরুষ ছিল যারা আপনার পা থেকে যোনি এবং পায়ুপথও দেখেছিল।
দেখেছিল আপনার শরীরের বিভিন্ন অংশও। আরো একটা কথা, বলুন তো আপনি যখন আপনার স্বামীর সাথে যৌন কর্মে লিপ্ত হোন তখন কি বোরকা পরিহিত থাকেন? আপনার স্বামীও একজন মানুষ পুরুষও বটে।


প্রযুক্তির যুগে মুখমণ্ডল এমনকি শরীর পরিবর্তন করা কোন কঠিন কিছু নয়। পুরুষ নারীতে নারী পুরুষেও পরিবর্তন করা এখন খুব সহজ, শুধু অর্থ হলে সব সম্ভব। এত তাপমাত্রার মধ্যেও কিসের শাস্তি বহন করে চলছেন এই কালো আবরণীতে নিজেকে বন্দী করে? কথাটি বলতে চাই নি, আরিয়ানা কস্তা যার রক্ত দ্বারা আপনার হৃৎপিণ্ড চালিত হয়ে শরীরের শিরা উপশিরায় দৌড়াচ্ছে।

ঐ নারী কালো শূকরের মাংস খেয়ে বড় হয়েছে এবং এখনো খাচ্ছে। অর্থাৎ শূকরের রক্ত আপনার শরীরে শিরা ধমনীতে। আর আপনি হারাম হালাল খুঁজে বেড়াচ্ছেন। বৌয়ের বয়ান শুনে আমার ওজু নষ্ট হয়ে গেল। নাউজুবিল্লাহ।।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesbazar_brekingnews1*5k
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD