মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন

লেখক ভাগ্য নিউজিল্যান্ডে

লেখক ভাগ্য নিউজিল্যান্ডে

লেখক ভাগ্য নিউজিল্যান্ডে
হাসনাইন সাজ্জাদী
।।
বাংলাদেশে লেখক হওয়া সহজ।কবি হওয়া আরো বেশি সহজ।বই বেরোনোর আগেই কবি হওয়ার গল্প সেদিন একজনের পড়লাম।মুখে মুখে এই কবি ছাড়াও শতাধিক কবিতার বই বের হয়েছে কিংবা বিশ্বের ৫/১০টি ভাষায় কবিতা অনুদিত হয়েছে এমন কবির সঙ্গে শাহবাগে হাটলেই গায়ে ধাক্ষা লাগবে।এটা ভালো ধরে নিয়েই বলতে চাই পুসিং সেল বা ফ্রি দেয়া ছাড়া কবিতার বই বিক্রয়ের খবর তেমন একটা নেই।সরকারের কোনো বড়ো জায়গায় বসলেই বেচা-কেনা হয়।না হলে তেমন একটা সুখবর কারো ভাগ্যেই হবার নয়।
সুখবর ড.মুস্তাফিজুর রহমান ভাই দিলেন নিউজিল্যান্ড থেকে।সেখানে লেখক হওয়া মানেই ভাগ্যের ব্যাপার।
দু’জন রিভিউ করে ওকে করে দিলেই বই বেরিয়ে যাচ্ছে লাখ লাখ কপি।বিক্রয় ছাড়াও বিশ্বের অন্যান্য ভাষায় অনুবাদও হয়ে যাচ্ছে।
দু’একটি বই বছরে বেরুলেই নিউজিল্যান্ডে সারা বছর মৌজ-মস্তি করে কাটানো যায়।তার ওপরে আছে লেখক রেসিডেন্ট।প্রকাশক ৬/৭ মাসের খরচ দিয়ে কোনো বিনোদন স্পটে লেখককে পাঠিয়ে দিবে।তিনি সেখানে বসে পাণ্ডুলিপি তৈরি করবেন।বিশ্বে এমন সুবিধা আর কোথাও নেই।তবে বাংলাদেশের মত নিঃসহায় লেখকের আধিক্য বিশ্বের আর কোথাও নেই।এখানে অনেক লেখককেই চা সিগারেটের জন্য অন্যের উপর নির্ভর করতে হয়।বাসায় যাবার সময় গাড়ি ভাড়া অনেকেরই থাকে না।কিন্তু আড্ডায় এদের দাপটে কথা বলা যায় না।শুধু নিজের গুণকীর্তন…

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesbazar_brekingnews1*5k
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD